ধূমপানের ফলে ক্যান্সারের মতো বহু সমস্যা দেখা দিতে পারে, এ তথ্য প্রায় সবারই জানা। তবে সম্প্রতি গবেষকরা জানিয়েছেন, কেউ নিয়মিত ধূমপান করলে মানসিক রোগ অর্থাত্ সিজোফ্রেনিয়ার মতো রোগও দেখা দিতে পারে।

বিশেষ করে তরুণ বয়সে যারা ধূমপানে আসক্ত হয়, পরবর্তীকালে তাদেরই এই জটিল মানসিক রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি।

লন্ডনের কিংস কলেজের এক দল গবেষক ৬১টি গবেষণার ফল বিশ্লেষণ করে দেখেছেন, ধূমপায়ীদের মধ্যে অল্প বয়সেই সিজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা রয়েছে। গবেষকরা বলছেন, খুব সম্ভবত সিগারেটের নিকোটিন মস্তিষ্ককে প্রভাবিত করে। নিকোটিন বদলে দিতে পারে মস্তিষ্কের গঠন। ল্যানসেট সাইকিয়াট্রি জার্নালে প্রকাশিত এই প্রতিবেদনে বলা হয়, সিজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্তরা সচরাচর ভুল কণ্ঠ শুনতে পায় বা অলীক কিছুু দেখতে পায়, তারা এ মানসিক চাপ কমাতে ধূমপানের পথ বেছে নেয়। গবেষকরা ১৪ হাজার ৫৫৫ জন ধূমপায়ী এবং দুই লাখ ৭৩ হাজার ১৬২ জন অধূমপায়ীর ওপর পরীক্ষা চালান। এতে দেখা গেছে, মানসিক রোগীদের ৫৭ শতাংশই ধূমপায়ী। আর যারা দৈনিক ধূমপান করে তাদের মধ্যে সিজোফ্রেনিয়া দেখা দেওয়ার ঝুঁকি অন্যদের তুলনায় দ্বিগুণ বেশি।

ধূমপায়ীদের মধ্যে গড়ে একবছর আগেই সিজোফ্রেনিয়ার লক্ষণ দেখা দেওয়ার ঝুঁকি থাকে।

ফলে ধূমপান অল্প বয়স থেকেই কোনো ব্যক্তিকে এ মানসিক অবস্থার দিকে ঠেলে দিতে পারে বলে সতর্ক করেছেন গবেষকরা।

সূত্র : মেডিক্যাল ডেইলি।

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *